সোনালী ব্যাংকে টাকা জমা রাখলে তিনগুণ মুনাফা

এবার অ’ভিনব একটি স্কিম নিয়ে এসেছে সোনালী ব্যাংক। এই স্কিমে টাকা জমা রাখলেও পাওয়া যাব’ে তিন গু’ণ মুনাফা! সোনালী ব্যাংকের ট্রিপল বেনিফিট স্কিম দিচ্ছে এই সুবিধাঠিক কীভাবে পাওয়া যাব’ে এই তিন গু’ণ মুনাফা সেটা এবার দেখে নেয়া যাক। এককালীন এই স্কিমে টাকা জমা রাখতে হবে কমপক্ষে ৫০ হাজার বা এর গু’ণিতক হিসেবে। প্রাপ্য মুনাফার হার থাকবে ৯ শতাংশ (চক্রবৃ’দ্ধি হারে)। পূরন মেয়াদে অর্থাৎ ১২ বছর ৯ মাসে এই স্কিমের টাকার পরিমাণ হবে তিন গু’ণ।

ট্রিপল বেনিফিট স্কীম (TBS) Triple benefit scheme: সময় কাল: মুনাফার হার ৯.০০% (চক্রবৃ’দ্ধি) ৬ মাস পূর্তিতে ৩.০০% সরল মুনাফা। ১ বছর পূর্তিতে ৩.৫০% সরল মুনাফা। ২ বছর পূর্তিতে ৪.০০% সরল মুনাফা। ৩ বছর পূর্তিতে ৪.৫০% সরল মুনাফা। ৪ বছর পূর্তিতে ৫.০০% সরল মুনাফা। ৫ বছর পূর্তিতে ৫.৫০% সরল মুনাফা। তবে সময়ের সাথে সাথে মুনাফার হারও বাড়তে থাকবে। ৬ বছর পূর্তিতে ৬.০০% সরল মুনাফা।

৭ বছর পূর্তিতে ৬.৫০% সরল মুনাফা। ৮ বছর পূর্তিতে ৭.০০% সরল মুনাফা। ৯ বছর পূর্তিতে ৭.৫০% সরল মুনাফা। ১০ বছর পূর্তিতে ৮.০০% সরল মুনাফা। ১১ বছর পূর্তিতে ৮.৫০% সরল মুনাফা। ১২ বছর পূর্তিতে ৯.০০% সরল মুনাফা। ১২ বছর ৯ মাস পূর্তিতে ৯.০০% চক্রবৃ’দ্ধি মুনাফা। এই স্কিমে টাকা রেখে তিন গু’ণ টাকা প্রা’প্তির ক্ষেত্রে অবশ্য বেশ কিছু শর্তও রয়েছে।

সরকারী নিয়মানুসারে উৎসে কর এবং আবগারী শুল্ক আমানতকারীর হিসাব ‘হতে কর্তন করা হবে। মেয়াদ উত্তীর্ণের পূর্বে টিবিএস হিসাব ভাঙলে উপরল্লিখিত মুনাফার হার প্রযোজ্য হবে তবে পূর্বে খোলা হিসাব সমূহের নীতিমালা সংশ্লিষ্ট সারকুলার/পরিপত্র অনুযায়ী পরিচালিত হবে।

শুধু তাই নয়, অন্যান্য শর্তের মধ্যে রয়েছে, হিসাব খোলার নিয়মাবলী যথাযথভাবে অনুসরণ পূর্বক প্রতিষ্ঠানের নামেও এ হিসাব খোলা যাব’ে। মেয়াদ পূর্তিতে মুনাফার পরিমাণ হ্রাস/ বৃ’দ্ধি পেলে শাখায় সুদ হিসাব সমন্বয়ের মাধ্যমে আমানতকারীকে বিধি মোতাবেক প্রাপ্য অর্থ পরিশোধ করতে হবে।

লোডশেডিংয়ের সময়টুকু যেভাবে কাটাতে পারেন

প্রকৃতির আলো-অন্ধকারে লোডশেডিংয়ের সময় উপভোগ করা যায়। ধরুন বিদ্যুৎ নেই চোখ বন্ধ করে মন দিয়ে প্রকৃতির শব্দ শুনুন। প্রকৃতিতে ছড়িয়ে আছে হাজারো শব্দ। সেগুলোকে শুনলে মন শান্ত হবে, জানা হবে প্রকৃতিকেও আরও কাছ থেকেও।

লোডশেডিং

এই সুযোগে আবার সঙ্গীর খুঁত ধরতে উঠে পড়ে লেগে যাবেন না, পারিবারিক অশান্তিই তৈরি হবে এতে। পরিবারে সেই কথাগুরো চর্চা জারি রাখুন যেগুলো পরস্পর পরস্পরের প্রতি ভালোবাসা আর শ্রদ্ধার বাহন।

১. আঁকতে বা লিখতে ভালো লাগে অথবা অন্য কোনো শিল্পচর্চায় নিজেকে নিয়জিত রাখতে চান। কাজের ফাঁকে এই শহরে নিজের জন্য সময় বের করা অসম্ভব কঠিন। তবে এতকিছুর মধ্যেও আপনি যদি নিজের এই সৃজনশীলতার চর্চা অব্যাহত রাখতে চান, লোডশেডিংয়ে এই কাজটিও করতে পারেন। নিজের পছন্দের কাজ করার মাধ্যমে মানসিকভাবে ইতিবাচক ও আনন্দপূর্ণ হয়।

২. হাঁটতে বের হতে পারেন। জনমানুষের সান্নিধ্যে এসে মনটাও বেশ ফুরফুরে হয়ে উঠবে। কে জানে, হয়তো দিনের আলোয় যে রাস্তাকে অনেক চেনা লাগে, সেটাই আবার নতুন করে চিনতে পারবেন। হয়তো নতুন করে ভালো লাগতে শুরু করবে অনেক কিছু।

৩. দিনের বেলায় প্রকৃতির আলোয় ক্যারম বা লুডুর মতো খেলাগুলো যে জমে উঠবে পারিবারিক আয়োজনে তা বলাই বাহুল্য। মাথা খানিকটা বেশি খাটাতে চাইলে দাবাকেও বেছে নিতে পারেন।

Related Posts

এখনো যে বাজারে রোজ বেচাকেনা হচ্ছে ১৮ কোটি টাকার আম

আমের রাজধানীখ্যাত চাঁপাইনবাবগঞ্জে শেষ মুহূর্তেও জমে আছে আমের বাজার। এবার ভালো দাম পেয়ে লোকসান কাটিয়ে উঠছেন চাষি ও ব্যবসায়ীরা। প্রতিদিন কানসাট আম বাজারে আশ্বিনা, গৌড়মতি ও কাটিমন…

সোনার বাজার অস্থিরতা, ভরিতে দাম বাড়ল ৪ হাজার টাকা

দেশের বাজারে স্বর্ণের দাম আরও বেড়েছে। সবচেয়ে ভালোমানের অর্থাৎ ২২ ক্যারেটের প্রতি ভ‌রি স্বর্ণের দাম পড়বে ৮১ হাজার ২৯৮ টাকা।মাত্র দুই দিন আগে (২৬ জুলাই) মান অনুযায়ী…

Leave a Reply

Your email address will not be published.